nid কার্ডের ছবি পরিবর্তন - এনআইডি কার্ডের ছবি পরিবর্তন

nid কার্ডের ছবি পরিবর্তন - এনআইডি কার্ডের ছবি পরিবর্তন 






NID কার্ডের পুরাতন ছবি পরিবর্তন করে একদম লেটেস্ট ছবি যুক্ত করতে পারে





শুরুতেই আপনাকে আপনার স্মার্টফোন অথবা কম্পিউটার থেকে কোন একটা ব্রাউজার এ প্রবেশ করতে হবে ওকে আমি এখান থেকে ওপেন করছি ওপেন করার পরে কি লিখবো আমার সামনেই এনআইডি কার্ড ওয়েবসাইট রয়েছে service nid gov ডট বিডি এটা লিখে সার্চ করুন





এখন থেকে নামে কাউকে আমি ডাউনলোডের টা ক্লিক করার পর এখন থেকে এখানে থেকে হারানো সংশোধনের জন্য আবেদন ফরম এর উপরে ক্লিক করার পরে কিন্তু ফরম এজন্য এটা কি আমি ডাউনলোড করে ফেলব উপর থেকে ক্লিক করে আমি ডাউনলোড করে ফেলব ডাউনলোড করার পর এখন আমাকে যে কাজটা করতে হবে কোন একটা কম্পিউটার দোকানে নিয়ে গিয়ে এটাকে একটা প্রেম করতে হবে দেন




 এইটা কি আমার তথ্যগুলোকে ফুলফিল করতে হবে ওকে কিভাবে ফুলফিল করবে সেটা আমি আপনাকে দেখাচ্ছি শুরু যেখানে নাম দেখাচ্ছে এখানে আপনার নামটা রয়েছে সেখানে বসিয়ে দিবেন তারপর আপনার নাম্বারটা এখানে বয়স্ক হলে ঠিক আছে যদি 18 বছরের কম বয়স্ক হয় তাহলে তারপর




যেটা করবেন সেটা কেন বললে করতে হবে এক্ষেত্রে আমাদেরকে এই অন্যান্য যে ফোনটা রয়েছে সিলেক্ট করতে হবে ওকে ক্লিক করার পর এখানে দেখেন বর্তমানে জাতীয় পরিচয় পত্র সংরক্ষিত তথ্য উপাত্ত বিদ্যমান তথ্য এখানে শুধু ছবি শব্দ লেখবেন এই জায়গায়




তারপরও দূষণযুক্ত দলিলাদি পমন্তব্য এক্ষেত্রে আমাদের যাচ্ছে এনআইডি কার্ডের ফটোকপি রয়েছে সংযুক্ত করে দিতে হবে ওকে এখানে লিখে দিবেন বিয়ের পরিমাণ ঠিক আছে এখানে আপনাকে 230 টাকা জমা দিতে হবে আর এটা একটা চালান ফরম এর মাধ্যমে সরকারি ব্যাংক রয়েছে সোনালী ব্যাংকে টাকা জমা দিতে হবে ঠিক আছে





এটা দেখতে পারছেন এটা আপনি লিখবেন না এখানে তার লেখার দরকার নেই কোন শাখায় জমা দিচ্ছেন সেখানে শাখার নামটা লিখবেন উপজেলা নির্বাচন অফিসারের কার্যালয় থেকে নিতে হবে কারণ এখানে যে কোডটা যাবে সেটা এখান থেকে তাদের কাছ থেকে এই কোড নাম্বারটা এখানে বসাও পরে তার নাম ও ঠিকানা এখানে





নাম পদবী ও ঠিকানা প্রদত্ত হইল তার নাম পদবী ও ঠিকানা গ্রাম ডাকঘর তার প্রতি জেলা ও উপজেলা এখানে থাকার জায়গা এখানে 230 টাকা সরকারি কর্মকর্তার নাম পদবী ও দক্ষিণ উপজেলা নির্বাচন অফিস হয় তাহলে উপজেলা নির্বাচন অফিস এখানে জায়গায় 230এখানে জায়গায় 230 টাকা




দেয়ার পর এখানে কিন্তু আপনার কাজ মোটামুটি ভাবে শেষ এখন আপনি এই চালান ফরম টা নিয়ে গিয়ে কোন সোনালী ব্যাংক অথবা সরকারের যে কোন ব্যাংক রয়েছে যেখানে চালান ফরম নেই সেখানে আপনার টাকাটা জমা দিবেন জমা দেওয়ার পর এইটা নিয়ে আপনি হচ্ছে আপনার উপজেলা নির্বাচন অফিসারের কার্যালয় চলে আসবেন চলে আসার পর আপনাকে যে কাজটা করতে হবে এখানে টাকা জমা দেওয়ার পর তারা কিন্তু এটা





আপনার নাম্বার দিবেন নাম্বারটা এখানে আপনাকে উল্লেখ করে দিতে হবে মাস্তি তারপর ছাড়ার আবেদনপত্র চমক দেওয়ার পর আরেক কিন্তু একটা চালান নাম্বার দিবি চালান নাম্বারটা এখানে আপনাকে উল্লেখ করে দিতে হবে তারপর আবেদন পত্র





এনআইডি কার্ডের ফটোকপি ওকে যদি 18 বছরের নিচে কেউ আবেদন করে তাহলে তার কাছে তার অভিভাবকের নাম ঠিকানা এবং মোবাইল নাম্বার দিতে হবে আর যদি আপনি আবেদন নিজেই করেন তাহলে এই পাশে থাকেন ডান পাশে একটা অপশন রয়েছে আবেদনকারীর স্বাক্ষর এবং তীব্র এখানে আপনার স্বাক্ষর দিবেন তারপর নাম লিখবেন ঠিকানা মোবাইল নাম্বার দিবেন আর যদি থাকে






 তাহলে টা দিবেন তার নিচে কিন্তু আরও একটা অংশ রয়েছে সেটা ঠিক আছে আপনার কোন কিছু করতে হবে না এবং ফিলাপ করতে হবে না এবং নির্বাচন কমিশনের অফ করবে এখানে কিন্তু আবেদনকারীর কিছু নির্দেশ রয়েছে সেটা আপনি পড়তে পারেন আরেকটা রয়েছে এখানে আপনাকে কিছু করতে হবেনা কিন্তু শেষ হওয়ার পর আপনি যেটা শুনতে হচ্ছে আপনার আইডি কার্ডের ফটোকপি এবং চালানোর কপি সংযুক্ত






 করে উপজেলা নির্বাচন কমিশন অফিসে যাবেন সেখানে উপজেলা নির্বাচন অফিসার আপনার ছবি শক্ত করবেন শক্ত করবেন এবং আপনার এপলিকেশন পরবর্তীতে ও ঢাকায় পাঠাবেন টাকা পাঠানোর পর যদি টাকা থেকে মনে করেছে সবকিছু ঠিক আছে তাহলে অবশ্যই আপনার আইডি কার্ডের ছবি পরিবর্তন হয়ে যাবে দেন উপজেলা নির্বাচন অফিস থেকে আপনাকে জানানো হবে যে আপনি কবে এটা নিয়ে যেতে পারবেন

Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url