নতুন জন্ম নিবন্ধনের জন্য আবেদন-জন্ম নিবন্ধন আবেদন-আবেদনের অবস্থা-onlinebris

 

নতুন জন্ম নিবন্ধনের জন্য আবেদন-জন্ম নিবন্ধন আবেদন-আবেদনের অবস্থা-onlinebris





এখন থেকে জন্ম নিবন্ধন জন্ম সনদ করে ফেলতে পারেন অনলাইনে মাধ্যমে আপনার হাতে থাকা স্মার্ট ফোন দিয়ে বিষয়টা খুবই ফেসবুক এবং ইউটিউব চালানোর মতো সামান্য জ্ঞান রাখেন তারাও কিন্তু খুব সহজে অনলাইনে জন্ম সনদ করে ফেলতে পারেন আজকের ভিডিওতে আমি আপনাদেরকে সম্পূর্ণ প্রসেস দেখাবো কিভাবে আপনার জন্ম নিবন্ধন করবেন এবং কিভাবে আপনার সেই কফি হাতে পাবেন শুরু করার পূর্বে আপনাকে একটা জিনিস বলতে চাই


প্রথমে আপনার স্মার্টফোন থেকে চলে যেতে হবে ক্রোম ব্রাউজারে ওকে আমি এখান থেকে চলে আসছি রুমে আসার পর এখানে সার্চ করে কি লিখবো bd.gov.bd


এতক্ষণ পরে আমার সঙ্গে ঠিক এরকম ইন্টারফেস চলে এসেছে এখন এখানে পৌঁছে যে আপনি জন্ম সার্টি কোথা থেকে গ্রহণ করতে চান তাহলে ডিলেট করে দেবেন বর্তমান ঠিকানা থেকে নিতে চাইলে বর্তমান ঠিকানা সেট করে দেবেন আমি যেখানে আছি এখান থেকে পরবর্তীতে বাটন প্রেস করে দিব এখন আমার সামনে চলে আসছে খুবই ভালো করে ফুলফিল করবেন সেখানে যদি কোন ভুল থাকে



তো এখানে আপনাকে যে কাজটা করতে হবে যদি আপনার কোন প্রকার যুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট থেকে থাকে তাহলে সেটা যে নামটা দিয়েছেন নামটা এখানে দিয়ে দিবেন কোন যেন ভুল না হয় ইংরেজি বাংলা দুটো সিম দিয়ে দিবেন আর আপনার পিতা এবং মাতার নাম এক্ষেত্রে খুব সেনসিটিভ থাকবেন কারণ এখানে আপনার পিতা-মাতার যে ন্যাশনাল আইডি কার্ড হয়েছে এবং হচ্ছে পাক সার্টিফিকেট রয়েছে সেখানে যে নামটা যেভাবে রয়েছে সেই নামটা কিন্তু এখানে ইংলিশ এবং বাংলা দুইটা চমৎকার করে বসিয়ে দিবেন



সেখানে যে নামটা যেভাবে রয়েছে সিম নামটা কিন্তু এখানে ইংলিশ এবং বাংলা দুইটা চমৎকার করে বসিয়ে দিবেন এখানে প্রথম বাংলা ইয়াসির আরাফাততারপর এখানে জন্মতারিখ দেখাচ্ছে ওকে আমি একটা করে ফিলাপ করে আসছি প্রথমে হচ্ছে নামের প্রথম অংশ বাংলায় এটা কি আমি ফিলাপ করে দিচ্ছি আমার নেশা হয়ে গেল



এবার নামের শেষের অংশ এটাকে আমি ফিলাপ করে দিচ্ছি আমার বের হয়ে গেল নামের প্রথম অংশ ইংরেজিতে এটা আমি এখান থেকে করে দিচ্ছি দেন নামের শেষ অংশ ইংরেজিতে আমি ফুলফিল করে দিচ্ছি এখন জন্মতারিখ জন্মতারিখ এর উপরে ক্লিক দেওয়ার পর এখান থেকে



এখন এটা দেওয়ার পর একটা জিনিস সতর্কবাণী দেখাচ্ছে এখানে একটা জিনিস বলছে সতর্কবাণীও না মানে এখানে একটা নোটিশ দেখাচ্ছে নোটিশে তারা বলছে যে যদি জন্ম সনদ যখন করছেন যার জন্ম শহর টা করছেন তার যদি কোন প্রকার জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট না থেকে থাকে তাহলে সেই ক্ষেত্রে একজন এমবিবিএস ডাক্তারের প্রত্যয়ন পত্র লাগবে সে লিখে দিবে যে তার জন্ম তারিখ কত সালে এইরকম একটা প্রাপ্ত দিয়ে দিবে কিন্তু আজ করতে হবে



আর একটা জিনিস করতে হবে তার জন্য এবং ঠিক রাখতে পারে আবার দেখা গেল যে জন্ম হয়েছে সেটাও লাগতে পারে ঠিক আছে জন্মে সেগুলো যদি থাকে তাহলে এখানে দেখেন আমার কাছে এই ডকুমেন্টগুলো আছে ঠিক আছে যদি আপনার থাকতে হবে তা থাকলে আপনি এপ্লাই করতে পারবেন না আমার কাছে সে জন্য এপ্লাই করব এখানে আমি ঠিক করছি আমার কাছে ডকুমেন্টস গুলো আছে




এইখানে ক্লিক দেওয়ার পর এটা নিয়ে নিয়েছে এখন পিতামাতার কততম সন্তান ছেলে বা মেয়ে আলাদা করে ভাত হবে না এখানে জয়েন আপনার পাঁচ ভাই-বোন আছেন এখানে যদি আপনি চান তাহলে দিয়ে দিবে ঠিক আছে আমি এখান থেকে দ্বিতীয় পুরুষ এবং মহিলা যুক্ত করেছে ঠিক আছে এখানে থাকবে



এর মানে হচ্ছে এগুলো আমাকে মাসরুফুল ফিল করতে হবে আর যেখানে স্টার চিহ্ন নাই এটা কুলফি না করলেও কোন সমস্যা নাই যেমন জাতীয় পরিচয় পত্র নাম্বারে স্থান নাই এটার ফুলফিল না করলেও কোন সমস্যা নেই এখন এখানে জন্মস্থান এর ঠিকানা এখান থেকে বাংলাদেশ সিলেট করা থাকে তারপর এখান থেকে এখান থেকে হচ্ছে বিভাগ সিলেট করতে পারেন তারপর এখান থেকে জেলা তারপরে হচ্ছে



এখান থেকে আপনি সিলেট করবেন হচ্ছে উপজেলা পারবে এখান থেকেও ইউনিয়ন সিলেক্ট করবেন ঠিক আছে এখান থেকে সিলেট করে দিলাম এখন এখান থেকে পরের কথা বলছে আমি এখান থেকেও ডিলিট করে দিলাম এখন দেখেন এখানে দেখাচ্ছে ডাকঘর বাংলায় ইংরেজিতে তারপর হচ্ছে গ্রাম পাড়া-মহল্লা ঠিক আছে এগুলো ফুলফিল করতে হবে এইগুলো বাংলা এবং ইংরেজিতে ফুলফিল করবেন করে আসছি




আমার কিন্তু তথ্যগুলো ফুলফিল করা শেষ এখন পরবর্তীতে পাঠানো হয়েছে এখানে আমি একটা প্রেস করি প্রেস করার পর এখন স্কুল করে আমি আমার উপরের দিকে আসি এখন এখান থেকে কিন্তু আমার পিতা এবং মাতার যে তথ্য রয়েছে সেগুলো দিতে হবে আর সেগুলোর ন্যাশনাল আইডি কার্ড অনুসারে কিন্তু আমরা দিব আমি দেখে প্রথমে দেখাচ্ছে হচ্ছে পিতা জন্ম নিবন্ধন নাম্বার ঠিক আছে এখানে নাম্বার দিতে হবে তারপর পিতার নাম বাংলায় দিতে হবে পিতার নাম ইংরেজি হবে




তারপর এখান থেকে জাতীয় দিতে হবে আবার মাথায় নিতে হবে মাথা নামিয়ে দিতে হবে আবার হচ্ছে জাতীয়তা এই অংশটুকু করতে হবে ওকে আমি পরে আবার অফিসে আসছিডিটেলস এখানে কিন্তু ফুলফিল করেছি ওকে এখন আমি পরবর্তীতে পাঠানো হয়েছে এখানে একটা প্রেস করি এখন একটু কল করে উপরের দিকে যাই এখন এখানে বলছে নতুন জন্ম নিবন্ধনের জন্য আবেদন আপনি কি নিম্নলিখিত কোন ঠিকানায় স্থায়ী ঠিকানা হিসেবে ব্যবহার করতে চান




এখান থেকে আমি কোনটাই নয় সিলেট করে দিলাম দেয়ার পর এখান থেকে জন্মস্থান এবং স্থায়ী ঠিকানা কি হবে ঠিক আছে এখন দেখেন এইটা দিলাম দেওয়ার পর হচ্ছে নিচেরটা আপনি কি নিম্নলিখিত কোন ঠিকানা বর্তমান ঠিকানা হিসেবে ব্যবহার করতে চান এখান থেকে আমি কোনটাই নয় তাই ঠিকানা এবং বর্তমান ঠিকানা কিন্তু আমার কি হবে এখান থেকে কিন্তু আমার তো করা হয়ে গেছে এখন আমি যে কাজটা করব এখান থেকে পরবর্তী নামে যেখানে একটা প্রেস করে দিব ওকে এখান থেকে পরবর্তীকালে দেওয়ার পর আমি একটু উপরে চলে আসবে এখানে



কম হয় তাহলে তার অভিভাবক এখানে আবেদন করতে হবে ঠিক আছে সো আপনি নিজে আবেদন করতে পারবেন না যদি আপনার বয়স আঠারো হয়ে থাকে তাহলে সেই ক্ষেত্রে অন্যান্য সিলেক্ট করতে হবে আর যদি আঠারো হয়ে থাকে তাহলে কিন্তু আপনার নাম দেখাচ্ছে তার পরে হচ্ছে এখানে নিচে আপনি ফোন নাম্বারটা আপনি আপনার ফোন নাম্বারটা দিয়ে দিবেন আর যদি ইচ্ছে হয় তাহলে ট্রান্সলেট করার পর এখান থেকে কি রয়েছে এখানে তার জন্ম নিবন্ধন নাম্বার দিতে হবে তার পরিচয় পত্র নাম্বার দিতে হবে এবং তার নাম দিতে হবে আমি ফোন নাম্বার দিতে হবে আর দিতেও পারেন নাও দিতে পারেন




আগেই বলেছিলাম যদি জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট থেকে থাকে তাহলে তো আপনি সেটাই দিবেন আর যদি না থেকে থাকে তাহলে হচ্ছে মেডিকেল সার্টিফিকেট এখানে দাখিল করতে হবেঃ এমবিবিএস ডাক্তার করে দিবে তারপর হচ্ছে পিতা-মাতার জন্ম সনদের ফটোকপি এখানে দিতে হবে এবং এনআইডি দিয়ে দিলেই সব করা জিনিস দিয়ে দিলে ভালো হয় তাহলে খুব সহজে কিন্তু আপনার আবেদন বাতিল হয়ে যাবে ওকেফাইল কিন্তু 100 কিলোবাইট মধ্যে রাখতে হবে সকালে বারের বেশি হলে নিবে না




এক্ষেত্রে দেখেন এখানে ক্যামেরা দেখাচ্ছে এখানে দেখাচ্ছে যদি আগে থেকে ছবি তুলে রাখেন তাহলে এখানে ফাইল থেকে ছবিগুলো নিয়ে আসবেন আর যদি ইনস্টল ছবি তুলে দিয়ে দেবেন আপনার সামনে রেখে খুব ভালোভাবে ছবি তুলবেন ঠিক আছে ক্যামেরা ক্যামেরা তে ক্লিক করলে আমি আগেই ছবি তুলে রেখে ছিলাম এখন আমি পর এখান থেকে এখান থেকে



মেডিকেল সিলেট করলাম তারপর উঠে সংযোজনে আবার দিলাম দেওয়ার পর এখান থেকে এখান থেকে ফাদার স্থান আইডি আগের আইডি দেওয়ার পর এখান থেকে আবার স্টার্ট বাটনে ক্লিক করব আবার সংযোজনের দিব এখন মাদার্স রয়েছে সেটা আমি নিয়ে আসবো আমি আবার দেবো দেয়ার পরে আবার আইডি দিলাম ওখান থেকে আবার কি করলাম




ক্লিক করে দেবো ক্লিক করার পর এখনো দেখতে পারছে না এতক্ষণ আমি যা যা ফুলফিল করেছি সব কিছু কিন্তু তথ্য দেখার আছে এটাকে খুব ভালভাবেই পাশ করবেন যদি কোন ভুল থেকে থাকে তাহলে সেটাকে আপনি আবার সংশোধনের সুযোগ পাচ্ছেন



এখানে যে পূর্ববর্তী রয়েছে এখানে প্রেস করলে কিন্তু আপনি পূর্বে যেতে পারবেন যত বাড়বে তত বাড়বে দিতে পারবেন কি আপনি সবগুলো পালন আমার ঠিকঠাক মতো ঠিক করতে পারবেন যদি আপনি মনে করেন যে সব ঠিক আছে তাহলে এখানে সাবমিট টা বেজে বাগানটা রয়েছে এ সাবমিট বাটনে ক্লিক করতে হবে আমি এখানে আপনি ঠিক করে দিচ্ছি



সফলভাবে সাবমিট করা হয়েছে ঠিক আছে তারপর এখানে কাছে আবেদন পত্রের নাম্বার ঠিক আছে এখানে একটা আবেদন পত্রের নাম্বার থেকে একটা ভালো করে একটা ডায়েরিতে লিখে রাখবেন কিন্তু কাজের জিনিস আর এখান থেকে আবেদনপত্র প্রিন্ট করুন আপনি করেছেন আপনি প্রেম করতে পারবেন না এক্ষেত্রে আপনাকে যে কাজটা করতে হবে একটা স্ক্রিনশট নিয়ে রাখতে এবং করবেন আমি এই আবেদন পত্র লিখবেন




এখন তোদের কি কি কাগজপত্র গুলো নিয়ে মানে হচ্ছে যে আপনার অ্যাপ্লিকেশনের যে কয়টি রয়েছে সেটা প্রিন্ট কপি টা নিবেন সেটা হচ্ছে আপনার পিতার এনআইডি তারপর হচ্ছে মাথার এনআইডি পিতার হচ্ছে জন্মসাল হচ্ছে জন্ম সনদ এই জিনিসগুলা প্রাণ দিবেন ঠিক আছে নেয়ার পর আপনাদের নিকট ইউনিয়ন পরিষদ রয়েছে অথবা পৌরসভা রয়েছে সেখানে যাবেন বা হচ্ছে নির্বাচন কমিশন অফিস রয়েছে সেখানে যাবেন




এখান থেকে ওঠার এই কাজগুলো করা হয় সেখানে যাবেন সেখানে তাদের কাছেই গলার জমা দিবেন জমা দেওয়ার পর তারা একটা নির্দিষ্ট টাইম পর্যন্ত এ টাকা অর্জন করবে এবং তারা যদি দেখে যে সব ঠিকঠাক রয়েছে পরবর্তীতে তারা তাদেরকে এসএমএস দিয়ে জানিয়ে দিবে যে আপনার সবকিছু কমপ্লিট এখন আপনি আপনার জন্ম সনদ নিয়ে যেতে পারবেন

Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url