ঘরে বসে ড্রাইভিং লাইসেন্স করার নিয়ম ২০২২-ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক 2022

ঘরে বসে ড্রাইভিং লাইসেন্স
করার নিয়ম ২০২২-ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক 2022


ঘরে বসে ড্রাইভিং লাইসেন্স  করার নিয়ম ২০২২-ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক 2022



আসসালামুআলাইকুম বন্ধুরা আশা করছি সকলেই অনেক ভালো আছেন ড্রাইভিং লাইসেন্স পেতে হলে অথবা গাড়ি চালানোর জন্য পারমিশন পেতে হলে আমাদের ড্রাইভিং লাইসেন্স করতে হয় আর এই ড্রাইভিং লাইসেন্স করতে যত ভোগান্তির শিকার হতে হয় 







ফোনের মাধ্যমে ড্রাইভিং লাইসেন্স করতে হয় এবং প্রচুর পরিমাণে মোটরসাইকেল ড্রাইভিং লাইসেন্স আমাকে তোমার জন্য আবেদন করতে পারি এবং জানতে কিভাবে আমরা আমাদের নিজেদের ড্রাইভিং লাইসেন্সের জন্য আবেদন করতে পারবো 







অনলাইনের মাধ্যমে সেটা একদম থেকে শুরু করে একদম শিক্ষানবিশকাল পরীক্ষা এবং স্মার্ট কার্ড পর্যন্ত তার আগে বলেনলাইসেন্সের জন্য আবেদন করব তার জন্য আমাদের সার্চ বর এসে লিখে সার্চ করতে হবে  







আমাদের এই লেখাটি কি লিখে সার্চ করতে হবে সার্চ করার পর আমাদের সামনে এরকম একটি ইন্টারফেস ওপেন হয়ে যাবে এই পেজটি ওপেন হয়ে যাওয়ার পর এখানে দেখতে পাচ্ছেন বিআরটিএ সার্ভিস পোর্টাল আমরা এইখানে ক্লিক করব এইখানে ক্লিক করার পর আমাদের সামনে এরকম একটি ইন্টারফেস ওপেন হয়ে যাবে 









ইন্টারেস্ট ওপেন হয়ে যাওয়ার পরে এই যে মাঝখানে দেখতে পাচ্ছেন নিবন্ধন প্রথমে আমাদের এখানে নিবন্ধন করে নিতে হবে তারা এই নিবন্ধনে ক্লিক করব নিবন্ধন করার পর আমাদের সামনে এরকম একটি ইন্টারফেস ওপেন হয়ে যাবে ইন্টারেস্ট ওপেন হয়ে যাওয়ার পর








 একটু নিচের দিকে আমরা দেখব আপনার কি কোনো অ্যাকাউন্ট নেই তাহলে এখানে নিবন্ধন করা সম্পূর্ণ নতুন কখনো আমরা বিয়ের সাইড লগইন তো অনেক দূরে অনেক দূরে যাই হোক আপনার সম্পূর্ণ নতুন হলে আমরা এইখানে প্রথমে দিব 








আমাদের অর্থাৎ জন্ম তারিখের দিন এরপর আমি দিব তবে দিয়েছি এরপরে আমরা আমাদের জন্ম সালটা আমার জন্ম সাল 3 ইঞ্চি জাতীয় পরিচয় টিভিতে হবে সেটি যদি আপনার 13 সংখ্যার হয় তাহলে পূর্বে জন্ম সাল কি বসে সদস্যসংখ্যা পূরণ করে দিবেন আর দর্শক হলে 10 সংখ্যা দিবেন








তার সংখ্যার এনআইডি নম্বর দিচ্ছিপরিশেষে আমাদের সামনে আবার এরকম পেজ ওপেন হবে ফেসবুক ওপেন হওয়ার পর এখানে পারছে না আমার নাম জন্ম তারিখ ইফতারিতে বি অন অপশন গুলো অটোমেটিক্যালি পূরণ হয় আশা পূরণ হয়ে আসার পর 








এখান থেকে পারছেন মোবাইল নাম্বার এখানে আমাদের একটি মোবাইল নাম্বার ইউজ করতে হবে সেটি অবশ্যই যেন একটি মোবাইল নাম্বার আমার মোবাইল নাম্বারটি ইউজ করছি এরপর দেখতে পাচ্ছেন ইমেইল আইডি আপনার একটা ইমেইল আইডি ব্যবহার করে দিবেন 








আমি আমার ইমেইল আইডি ব্যবহার করে দিচ্ছি অক্ষর বড় হাতের দিকে বাকিগুলো ছোট হাতের বিয়ের পরে কিছু সংখ্যা যোগ করে দিলাম এরপর আমরা এক হই পাসওয়ার্ড এখানে আমি এখানে আবার সেই পাসওয়ার্ড করার পরে আমরা সব ফুলফিল করার পরে আমরা এখানে নিবন্ধন নিবন্ধন কমপ্লিট হয়ে গেছে







অ্যাক্টিভ ইয়োর অ্যাকাউন্ট এবারে আমাদের আম মেইল অ্যাকাউন্ট দিতে যেতে হবে মেইল একাউন্ট একটা মেইল আসবে যেখানে কি করে আমাদের একাউন্টটিকে অ্যাক্টিভেট করে নিতে হবে তো আমরা এখানে দেখতে পাচ্ছেন বিএসপি থেকে আমাদের ম্যাসেজ এসেছে তবে 








এখান থেকে শুধু এক্টিভ করে দিব এখানে দেখতে পাচ্ছে কি আমাকে একটা অপশন রয়েছে আমরা জাস্ট ক্লিক এ ক্লিক করে দিব ক্লিক করার পর দেখতে পাচ্ছেন যে সার্ভিস পোর্টাল আমাদের নিয়ে এসেছে এখানে দেখতে পাচ্ছেন ইউজার অ্যাক্টিভেটেড সাকসেসফুলি








এখানে আমাদের দিতে হবে এবং পাসওয়ার্ড ইমেইল আর পাসওয়ার্ড দিলাম তারপর এখানে ক্লিক করে লগইন করার পর অর্থাৎ আমাদের মোবাইল ফোনে এই মুহূর্তে একটা ওটিপি কোড পাঠানো হয়েছে আমাদের এখানে দিতে হবে এখানে ক্লিক করে ইমেইল এবং পাসওয়ার্ড পাসওয়ার্ড এখানে দেখা যাচ্ছে









অনলাইন পেমেন্ট করতে পারবেন অনলাইনে আবেদন 24 ঘন্টা করা যাবেড্রাইভিং লাইসেন্স নামক একটা অপশন রয়েছে আমরা এই ড্রাইভিং লাইসেন্স অপশনটিতে ক্লিক করব ডাইভিং লাইসেন্স অপশনটিতে ক্লিক করার পর লাইসেন্সের জন্য আবেদন লাইসেন্স পরীক্ষার জন্য আবেদন









 লাইসেন্স ভেরিফিকেশন লাইসেন্সের জন্য আবেদন এখানে ক্লিক করে দিব এখানে ক্লিক করে দেওয়ার পর এখানে আমাদের কি কি লাগবে সেই বিষয়গুলো এখানে দেখা যাচ্ছে আবেদনকারীর সর্বোচ্চ 50 কিলোবাইট 150kb মেডিকেল সার্টিফিকেট সর্বোচ্চ কিলোবাইট মেডিকেল সার্টিফিকেট জন্য এখানে ক্লিক করুন 








এখানে কি করে আমরা অর্থাৎ মেডিকেল সার্টিফিকেট ডাউনলোড করব আমাদের রেজিস্টার্ড ডাক্তারআমাদের আপলোড করতে হবে তবু ধরা মেডিকেল সার্টিফিকেট পূরণ করা নিয়ে টেনশন করবেন না পূরণ কর আপনি ডাক্তারের কাছে দিলেই সে কিন্তু বুঝে ফেলবে যে কিভাবে পূরণ করতে হবে 








এরপরে যদি বুঝতে কোনো অসুবিধা হয় কোন সমস্যা নেই কোন বক্সে কমেন্ট করে জানিয়ে দেন আমি আপনাদের সমাধান দেয়ার চেষ্টা করব আর যাই হোক আমাদের পূরণ করে স্ক্যান কপি রাখতে হবে এরপর 3 নাম্বার দেখতে পাচ্ছেন









 জাতীয় পরিচয় পত্রের কপি সর্বোচ্চ 600kb স্ক্যান কপি আবেদনকারীর বর্তমান ঠিকানা এবং জাতীয় পরিচয় পত্র ঠিকানা যদি আপনাদের তখন দিতে হবে যদি আপনার ঠিকানাটা আপনার প্রদত্ত ঠিকানা সাথে আপনার ভোটার আইডি কার্ডের ঠিকানা যদি মিল না থাকে অর্থাৎ বর্তমান ঠিকানা যদি মিল না থাকে 








আর যদি দুটো একই রকম অর্থাৎ আপনার ভোটার আইডি কার্ডের ঠিকানা রয়েছে ঠিকানাটি আপনি দিয়েছেন তাহলে আর আপনার বিদ্যুৎ বিলের কাগজের প্রয়োজন পড়বে না ড্রাইভিং লাইসেন্স ড্রাইভিং লাইসেন্স বিদ্যমান থাকে 








তাহলে সেটি স্ক্যান কপি দিতে হবে এরপর শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদ স্ক্যান করা কপি শিক্ষাগত যে কোন একটা সনদের স্ক্যান করা হবে এখানে আপলোড করতে হবে অনলাইন আবেদন দাখিলের সময় ভুয়া তথ্য প্রদান করা হলে তারা ড্রাইভিং লাইসেন্স স্মার্ট কার্ড ড্রাইভিং লাইসেন্স বাতিল সহ তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে 








এখানে দেখতে পাচ্ছেন আমি সম্মত এখানে আমরা কি করে দিব এইখানে ক্লিক করার পর দেখতে পাচ্ছেন লাইসেন্সের জন্য আবেদন ডাইভিং লাইসেন্স এর ধরন আপনি কি পেশাদারি ও অপেশাদার অপেশাদার অপেশাদার বলতে আপনি কি চাকরি করবেন মানে গাড়ি চালানোর জন্য চাকরি নিছেন বড় বড় গাড়ি চালাবেন সেজন্য চাকরি করবেন 








যদি পার্সোনাল কোন গাড়ি চালান তাহলে সেটা হচ্ছে অপেশাদার তো আপনার যেটা সেটা দেবে না স্বামী অফিসারের রাখলাম এরপর আমাদের এখানে ছবি সিলেট করতে এইখানে ক্লিক করব এখানে ক্লিক করলে আমাদের ফাইল সিলেক্ট করতে বলবে আমরা সিলেট করে দেওয়ার পর 








একটু নিচের দিকে চলে যাব নিজের দিকে যাওয়ার পর এখানে জাতীয় পরিচয় পত্র নম্বর এখানে শুধু আমাদের নম্বর প্রযোজ্য আমরা এখানে জাতীয় পরিচয় পত্র নম্বর দেওয়ার পর একটু নিচের দিকে যাওয়ার পরে এখানে দেখতে পারবেন আবারও আমাদের জন্ম তারিখটি লিখতে হবে 








তবে এখানে জন্ম তারিখ লিখে দিব দেওয়ার পরে এখানে অনুসন্ধান অনুসন্ধান অনুসন্ধান এ ক্লিক করার পর মোটামুটি আমাদের অপশন গুলো অটোমেটিক হয়ে যাবে শুধুমাত্র পিতার নাম ইংরেজি এবং মাতার নাম ইংরেজিতে দিতে হবে তবে ইংরেজিতে লিখে দিচ্ছি ইংরেজিতে লিখতে পারতো 








আমার এখানে পুরুষ গেলাম এরপর রক্তের গ্রুপ রক্তের গ্রুপ কি আপনাকে দিতে হবে তো এখানে আমার রক্তের গ্রুপ ও পজেটিভ দিয়ে দিলাম এরপর থেকে শিক্ষাগত যোগ্যতা এখানে শিক্ষাগত যোগ্যতার শিক্ষাগত যোগ্যতা এইচএসসি মানিয়েছে আপনাকে এখানে দেখা যাচ্ছে








তোমার জেলা সিরাজগঞ্জ থানা এখানে আমাদের থানা টি সিলেক্ট করতে হবে আমার থানা উল্লাপাড়া এরপর দেখতে পাচ্ছেন পোস্ট কোড ইংরেজিতে তো আমরা এখানে পোস্ট করে দিচ্ছে 6760 স্থায়ী ঠিকানা আমাদের বর্তমান এবং স্থায়ী ঠিকানা সেখানে যদি আপনার আলাদা আলাদা ভাবে পূরণ করে দিবেন








 আর আলাদা হলে অবশ্যই কিন্তু আপনার ইউটিলিটি বিল বিদ্যুৎ বিলের কাগজ দিতে হবে এখান থেকে আমরা অন্য কোন দেশের নাগরিক এর ফোন নম্বর আবাসিক যদি কোন নাম্বার থাকে সেটা মোবাইল নাম্বার এখানে আমাদের মোবাইল নাম্বারটি করতে হবে এর ফোন নম্বর অফিস যদি আপনাকে ইংরেজি ব্যবহার করতে হবে 








জরুরী যোগাযোগ করতে পারেন আপনার ফ্যামিলির কাউকে সিলেট করবো তো আমি আচ্ছা ব্যবহার করে দেওয়ার পর এখানে দেখতে পাচ্ছেন শিক্ষানবিস লাইসেন্সের জন্য প্রশিক্ষক এর ড্রাইভিং লাইসেন্স নম্বর আপনাকে যে প্রশিক্ষণ দিচ্ছে তার লাইসেন্স নম্বর এখানে চাইলে আপনি দিতে পারেন








 এরপর দেখবেন পরীক্ষার স্থান সিরাজগঞ্জ আমাদের সিরাজগঞ্জ বিএ পরীক্ষা দিতে হবেলাইভ বলতে কি গাড়ি চালক অর্থাৎ এজে মাইক্রো তারপরে আইস ইটালির অধিকারী রয়েছে সেগুলো তো আমি আপনাদের সাজেস্ট করবো দুটোতেই ঠিক মার্কেট যৌথ লাইসেন্স নেওয়া হতো 








আপনি ভবিষ্যতে গাড়ি গল্প কিছু টাকার জন্য এটার মিসটেক করবেন না আপনি চাইলে শুধু মোটরসাইকেল নিতে পারে না সে যাই হোক আমি দিয়ে দিলাম মেডিকেল সার্টিফিকেট সংযুক্ত করুন আমাদের প্রথমেই মেডিকেল সার্টিফিকেট সংযুক্ত করতে হবে আমরা কিন্তু ওখানে দেখেছি 








যে মেডিকেল সার্টিফিকেট ডাউনলোড করে কিন্তু পূরণকৃত হতে হবে তো আমার প্রকৃত রয়েছে আমি সেদিকে খারাপ করে দিচ্ছি এরপর দেখতে পাচ্ছেন জাতীয় পরিচয় পত্র সংযুক্ত করে জাতীয় পরিচয়পত্র সংযুক্ত করতে হবে তবে এখানে জাতীয় পরিচয় পত্র সংযুক্ত করব









আমি আমার জাতীয় পরিচয় পত্র টি সংযুক্ত করছি আচ্ছা জাতীয় পরিচয়পত্রটি সংযুক্ত করার পরে খানের শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদ সংযুক্ত করুন আমাদের শিক্ষাগত যোগ্যতা সংযুক্ত করতে হবে তো আমি আমার এই অর্থাৎ আমার ইন্টারভিউ ডেট সার্টিফিকেট এর সংযুক্ত করে দেওয়ার পরে 









এখান থেকে অশ্লীল সংযুক্ত করুন এখানে যদি আমি তো বলেছি স্থায়ী ঠিকানা যদি আলাদা হয়ে থাকে বর্তমান ঠিকানা থেকে তাহলে এখানে আপনার ইউটিলিটি বিল টি আপলোড করতে হবে না হলে কোন দরকার নেই আমরা সংরক্ষণ করুন আমরা সংরক্ষন করুন ক্লিক করার পর 







এখানে দেখতে পাচ্ছেন লাইসেন্সের জন্য আবেদন লাইসেন্স লার্নার লাইসেন্স সাকসেসফুলি দেখা দিয়েছে সাকসেসফুল হওয়ার পরে আমরা একটু নিচের দিকে চলে যাব নিজের দিকে যাওয়ার পরেই অনলাইন ফ্রী আমাদের অনলাইনে জমা দিতে হবে 







তো আমরা অনলাইন ফি জমা এইখানে কি করবো আমাদের ইনফরমেশন গুলো এখানে দেখাবে ইনফরমেশন গুলো ঠিকভাবে চেক করে নিব আমি কি করবো অনেক সময় আপনাদের সাইটে ঠিকঠাক মত কাজ নাও করতে পারে যদি কাজ না করে তাহলে 








আমরা এই পেজটি তে যখন আসব এই পেজটি থেকে আমরা উপরে দেখতে পারবোনা লাইসেন্স ইনফর্মেশন আমরা এইখানে ক্লিক করলে এইমাত্র যে আমরা অ্যাপ্লিকেশনটি সেভ করেছিস এই অ্যাপ্লিকেশনটি আমরা দেখতে পারবো সেই অ্যাপ্লিকেশন থেকে আমরা এখানে ক্লিক করে সেটিকে আমরা এডিট করে নিতে পারব 









ইডিট করার পরে নিচে দেখবেন অনলাইন পেমেন্ট আমরা অনলাইন পেমেন্ট করে দিব অনলাইন পেমেন্ট এ ক্লিক করার পর আমাদের সরাসরি অনলাইন পেমেন্ট গেটওয় নিয়ে যাওয়া হবে এখানে আমরা বিভিন্ন মাধ্যমে আমরা টাকাটি পেমেন্ট করতে পারব এখানে দেখতে পাচ্ছেন








 নেক্সাস কার্ড ভিসা কার্ড দিয়ে মোবাইল ব্যাংকিং এগুলোর মাধ্যমে আমরা কিন্তু টাকাটা পেমেন্ট করতে পারবো না এখানে ডান সাইডে দেখতে পাচ্ছেন পেমেন্ট বিকাশ আমরা বিকাশের মাধ্যমে কিন্তু টাকাটা পেমেন্ট করতে পারব তো চলুন আমরা বিকাশের মাধ্যমে টাকা পেমেন্ট করব 







তার জন্য আমরা বিকাশ অ্যাপ ট্রান্সলেট করে আমরা কনফার্ম করবো কোন খানে ক্লিক করার পর একটু সময় নেওয়ার পর দেখতে পাচ্ছেন বিকাশ পেমেন্ট গেটওয় তো আমাদের নিয়ে আসা হয়েছে টোটাল অ্যামাউন্ট হয়েছে 525 টাকা এখানে আমরা আমাদের বিকাশ অ্যাকাউন্ট নম্বরটি দিব তারপর এখানে 








আমাদের ভেরিফিকেশন কোড ভেরিফিকেশন করার পর আমরা কি করলে আমাদের পেমেন্ট হয়ে যাবে এরপর এখানে দেখতে পাচ্ছেন এইখানে ক্লিক করে আমরা কিন্তু লারনার লাইসেন্সে অর্থাৎ আমাদের জেলার লাইসেন্সের জন্য কিন্তু আমরা এখান থেকে ডাউনলোড করে নিতে পারবে আমাদের ডাউনলোড হয়ে গেছে 








স্ক্রিনের মধ্যে যে কাগজটা দেখতে পাচ্ছে আমার লার্নার ড্রাইভিং লাইসেন্স আবেদন করবেন তখন এরমধ্যে দেখবেন এক্সাম ডেট এবং সেই অনুযায়ী সেই জায়গা থেকে আপনাকে এক্সাম দিতে হবে তো বন্ধুরা কিন্তু গাড়ি চালাতে পারবো না আমার কার্ড দিয়ে গাড়ি চালাতে যায়








তাহলে কিন্তু আমরা আমাদের এই প্রশিক্ষণের জন্য আমরা প্রশিক্ষণ শেষ কালে দেখবেন এবং এক্সাম থাকবে আমাদের অনুযায়ী এক্সাম দিতে হবে পরীক্ষা দিতে গেলে আমাদের থিওরি পরীক্ষা শেষে দেখবেন আমাদের পরীক্ষা নেওয়া হবে অর্থাৎ গাড়ি চালাতে দেওয়া হবে একটা জায়গার মধ্যে গাড়ি চালাতে হবে 







ওই জায়গাটার মধ্যে সুষ্ঠুভাবে চালাতে পারলে আপনি সফলভাবে পরীক্ষায় পাশ করে যাবেন আপনি যদি পরীক্ষায় পাশ করেন তবে আপনি স্মার্ট কার্ডের জন্য আবেদন করতে পারবেন তো বন্ধুরা এখন হয়তো অনেকে জিজ্ঞেস করবেন পরীক্ষা দেবেন অর্থাৎ আপনার ড্রাইভিং লাইসেন্স এর অফিস আছে যেখানে আপনি পরীক্ষা দিবেন 








সেখানে আবার যাবেন সেখানে হেলপ্লেস অথবা তথ্যকেন্দ্রে আপনি কথা বলবেন যাতে স্মার্ট কার্ড পেতে চান তাহলে তারা আপনাকে বিস্তারিত বলে দিবে এবং ফ্রম দিয়ে দিবে সেটা কে সঠিকভাবে পূরণ করে জমা দিলে আপনার কাছে ফিঙ্গারপ্রিন্ট এবং ছবিগুলো নেওয়া হবে









 এবং দেওয়ার পরে আপনাকে একটা প্রাপ্তি রশিদ ডেলিভারি দেওয়া হবে যে ডেলিভারি আপনি ড্রাইভিং লাইসেন্স ড্রাইভিং লাইসেন্স হিসেবে ব্যবহার করতে পারবেন।

Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url