ভোটার আইডি কার্ড চেক 2022 - Voter ID Card Check Online - NID Card Check-OnlineBris

 

ভোটার আইডি কার্ড চেক 2022 - Voter ID Card Check Online




আমরা অনেকেই নতুন ভোটার নিবন্ধন হয়েছে এছাড়া অনেকেই অনেক আগেই ভোটার নিবন্ধন এবং তার নাম্বারটা হারিয়ে ফেলেছেন মাধ্যমে আমি আপনাদেরকে দেখাবো নতুন ভোটার হয়েছেন এবং যারা অনেক আগেই ভোটার হয়েছিলেন তাদের হারিয়ে ফেলেছেন তারা কিভাবে তাদের ভোটার নাম্বার বের করে ভোটার নাম্বার দিয়ে তারা অনলাইন থেকে ডাউনলোড করবেন





মোবাইল অথবা কম্পিউটার এর যেকোনো একটি ব্রাউজার ওপেন করবেন ওপেন করে সেখানে সার্চ করে লিখবেন service.nid.gov.bd লিখে সার্চ করবেন service.nid.bd ওয়েবসাইট ওয়েবসাইট এ ক্লিক করে দিবেন তুমি বাড়িতে এসে আমরা বিগত দিনে কিন্তু এই যে কোপারেটিভ বিল বার আছে এরপর থেকে অন্যান্য তথ্য থেকে ভোটার তথ্য থাকে ক্লিক করে সেখানে




ফোন নাম্বার এবং জন্ম তারিখ দিয়ে কিন্তু আমরা আমাদের এই নাম্বারটি দেখতে পারতাম কিন্তু তারা এসিস্টেন্ট করেছে যার কারণে আমরা এখন এখান থেকে কিন্তু আর এই যে নারী নাম্বার দেখতে পাচ্ছিনা ভোটার তথ্য গুলো দেখতে পাচ্ছে না তো এখন আমাদেরকে যে কাজটি করতে হবে উপরে উঠতে পারেন 3 নাম্বার লেখা আছে সেখানে রেজিস্টার করতে হবে আপনি এখানে ক্লিক করবেন দেখবেন আপনারকরবেন বলেছেন ফরম পূরণ করতে চাইলে ক্লিক করার সাথে সাথে দেখবেন তাদের যে আপডেট ভার্সন ওয়েবপেজটি আছে






সেই পেজটি আপনার সামনে ওপেন হয়ে যাবে এই ওয়েব পেজে আপনাকে নতুন নিয়মে ভোটার নাম্বার 5 নাম্বার আইডি নাম্বার দিয়ে রেজিস্ট্রেশন করে আপনাকে এনআইডি কার্ডের অরজিনাল কপি ডাউনলোড করার জন্য প্রথমে যে কাজটি করতে হবে এখানে বাম পাশে দেখতে পাচ্ছেন যে আমাকে একাউন্ট নাই এবং তার নিচে দেখেন লেখা আছে রেজিস্টার করুন তখন আপনি এই ধরনের ক্লিক করবেন রেজিস্টার করুন ক্লিক করার সাথে সাথে দেখবেন






আপনার সামনে করার জন্য এরকম একটি ফরম চলে আসবে প্রথমে দেখ আপনাকে বলছে জাতীয় পরিচয় পত্র ফরম নাম্বার তো এইখানে আপনি জাতীয় পরিচয় পত্র নাম্বার আপনার ভোটার নিবন্ধনের ফরম নাম্বার যদি আপনার নতুন হয়ে থাকেন তাহলে আপনি নতুন ভোটার ফরম নাম্বারটি এবং আপনি যদি ভোটার ফরম নম্বর টি হারিয়ে ফেলেন







সে ক্ষেত্রে আপনি আপনার ভোটার লিস্ট থেকে কালেকশন করে ভোটার নাম্বার টু এইখানে দিয়ে আপনি কিন্তু রেজিস্টার করে আপনার অনলাইন এনআইডি কার্ড টি ডাউনলোড করতে পারেন এখানে আমি আপনাদেরকে ভোটার নাম্বার দিয়ে রেজিস্টার করে দেখাচ্ছি আপনারা কিন্তু আমার নাম্বার নাম্বার দিলে নিবন্ধন হবে আমি এখন এখানে ভোটার নাম্বার দিয়ে লিখে দিচ্ছি






আপনি কি পাচ্ছেন জন্মতারিখ তখন আপনি এখানে আপনার সঠিক জন্ম তারিখটি লিখে দিবেন তারপরে তার নিচে একটি ক্যাপশন দেখতে পারছেন এখানে আপনাকে উপরে যে ক্যাপচার করতে দেখতে পাচ্ছেন এই ক্যাপচার করতে দেখে থেকে নিচে সঠিকভাবে লিখে দিতে হবে যদি অক্ষর বড় হাতের আংটি দেওয়ার পরে একদম নিচে লেখা আছে যখন আপনি এই সাইটে ক্লিক করবেন তোর সাথে সাথেই দেখবেন






আপনার বর্তমান ঠিকানা এবং স্থায়ী ঠিকানা যেখানে আপনি সেখানে আপনি প্রথমে তারপর আপনি আপনার জেলা সিলেট করবেন তারপর আপনার উপজেলা ডিলিট করবেন তারপর আপনি একইভাবে তার নিজের টা আমি আপনার বিভাগ তারপর আপনার জেলা এবং তারপর আপনার উপজেলা সিলেট করে দিবেন পরবর্তী তখন আপনি এই পরবর্তীতে এ ক্লিক করবেন পরবর্তীতে ক্লিক করার সাথে সাথে দেখবেন






আপনি ভোটার নিবন্ধন সময় আপনাকে নিবন্ধন ফরমের যে ফোন নাম্বারটি দিয়েছিলেন সে ফোন নাম্বারটি আপনি এখানে দেখতে পাবেন যদি আপনার ফোন নাম্বারটি একটিভ থাকে তাহলে আপনি এখান থেকে বার্তা পাঠালে ক্লিক করবেন আর যদি আপনার ফোন নাম্বারটি অ্যাক্টিভ না থাকে আপনি যদি ফোন নাম্বারটা হারিয়ে ফেলেন তাহলে আপনি ডান পাশে থাকা






মোবাইল পরিবর্তনে ক্লিক করে আমি মোবাইল নাম্বারটি পরিবর্তন করতে পারবেন মোবাইল নাম্বার পরিবর্তন এ ক্লিক করার সাথে সাথে দেখবে এরকম একটি পরিবর্তন চলে আসবে তো এখানে আপনাকে আপনি যে মোবাইল নাম্বার দিয়ে দিতে ইচ্ছুক সে মোবাইল নাম্বারটা এখানে লিখে দিতে হবে মোবাইল নাম্বার লিখে দেওয়ার পরে দেখতে পারতাম তখন আপনি






এখানে ক্লিক করে ক্লিক করে দেখবেন আপনার ফোন নাম্বার এবং আপনার নাম্বারটি চলে যাবে সেখান থেকেও আপনি কিন্তু আপনার এই নাম্বারটি সংরক্ষণ করতে পারেন তারপর আপনি আপনার সেই মোবাইলে আসা 600tk থেকে এখানে লিখে দিবেন লেখার পরে নিজ থেকে এই জীবন মরণ দেখতে পাচ্ছেন আপনি এই বাটনে ক্লিক করবেন






তারপর দেখবেন আপনার সামনে করার জন্য এরকম চলে আসবে আপনার মোবাইলে এপ্লিকেশন ইন্সটল করুন 23 যাচাই পরীক্ষা শেষ হলে আপনাকে পরবর্তীতে নিয়ে যাওয়া হবে তখন আপনার সামনে একটি কিউআর কোড দেখতে পাবেন এইবার কোটি স্ক্যান করে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে আপনার ফেসবুক ভেরিফাই করতে হবে অ্যাপটি ডাউনলোড করার জন্য






আপনি যে গুগল প্লে দেখতে পাচ্ছেন আপনি এখান থেকে এই গুগল প্লে তে ক্লিক করেন ক্লিক করার সাথে সাথে দেখবেন যে আপনার মোবাইলে গুগল প্লে স্টোরে সেই অ্যাপটির নাম চলে আসবে তো আপনি এখান থেকে তখন এই অ্যাপসটি ইন্সটল করে নিবেন যদি আপনি কাজটি মোবাইল দিয়ে করে থাকেন তাহলে কিন্তু দেখবেন আপনার মোবাইলে যদি ইন্সটল করতে পারবেন এবং বিয়ে করেন সেটা ধরে






আপনাকে মোবাইলে এখানে এনে দেওয়ার পরে তারপরে কিভাবে করতে হবে করতে পারবেন করবেন এখন দেখতে পাবেন যে টপ টু ওপেন এ নেটওয়ার্ক তখন আপনি এখানে ক্লিক করে দিবেন তখনই করে দেওয়ার সাথে সাথে দেখবেন যে অ্যাপসটি ওপেন হয়ে যাবে এবং তারপরে






আপনি কীভাবে ধরে রাখবেন এবং তারপর আস্তে আস্তে এবং বাম দিকে ঘুরে দেখবেন আপনার ফ্যান হয়ে যাবে ফ্রী ডাউনলোড ফোল্ডার থেকে সেই ডাউনলোড ফাইল ওপেন করলে ঠিক এরকম একটি অরজিনাল আইডি কার্ডের কপি দেখতে পারবেন

Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url