জন্ম নিবন্ধন সংশোধন অনলাইন

 আমরা এখন কথা বলব, জন্ম নিবন্ধন করার পর যদি আমাদের জন্ম নিবন্ধনে কোথাও ভুল হয়ে থাকে সে ক্ষেত্রে করণীয় কি? কিভাবে সংশোধন করতে পারবো? এই পোস্টে আলোচনা করব। জন্ম নিবন্ধন ফরম যদি ভুল হয়, তাহলে আমরা কি করতে পারি? 


আমাদের করণীয় কী হবে? কিভাবে এটা সংশোধন করতে পারব। তা নিয়ে নিচে কিছু আলোচনা করব। তাহলে, আপনারা যদি আমার পুরো পোস্টটি মনোযোগ সহকারে পড়েন। তাহলে, আশাকরি আপনাদের উপকার হবে।


জন্ম নিবন্ধন আবেদনের বর্তমান অবস্থা

জন্ম নিবন্ধন সংশোধন আবেদন অবস্থা

জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করতে কত টাকা লাগে


জন্ম নিবন্ধন সংশোধন অনলাইন



জন্ম নিবন্ধনে পিতা/মাতার নাম সংশোধন



আপনার জন্ম নিবন্ধনে পিতা/মাতার নাম সংশোধন করা পরিস্থিতি ভেদে সহজ বা কঠিন হতে পারে।
পিতা/মাতার নাম সংশোধনের জন্য ভিন্ন ভিন্ন পরিস্থিতি অনুযায়ী ভিন্ন আবেদন পদ্ধতি রয়েছে। আমরা এখন জন্ম নিবন্ধন পত্র ভুল হলে, কিভাবে তা সংশোধন করতে পারব? সে বিষয় নিয়ে আলোচনা করব।


এখানে আমরা আলোচনা করব জন্ম নিবন্ধন পত্র ভুল হলে সেটা কিভাবে সংশোধন করতে পারব? যদি জন্ম নিবন্ধন পত্রে আমাদের পিতা মাতার নাম বা তাদের জন্ম নিবন্ধন নম্বর ভুল থাকে, সেক্ষেত্রে আমরা কি করতে পারি? আমরা এখন জন্ম নিবন্ধন পত্র ভুল হলে, কিভাবে তা সংশোধন করতে পারব? সে বিষয় নিয়ে আলোচনা করব


যদি পিতা/মাতার নাম সংশোধন করতে হয়, নিচে তা আলোচনা করা হলো:


যদি পিতা/মাতার জন্ম নিবন্ধন নাম্বার থাকে, তাহলে তাদের জন্ম নিবন্ধন নাম্বার দিয়ে জন্ম নিবন্ধন তথ্য সংশোধন আবেদন করে তাদের নাম সংশোধন করে আসতে হবে। 


এরপর যদি নিজের জন্ম নিবন্ধন করার সময় পিতা/মাতার জন্ম নিবন্ধন নাম্বার দিয়ে থাকেন, তবে তাদের নাম সংশোধন করার পর আপনার জন্ম নিবন্ধন সনদ তৈরি করলে সেখানে পিতা/মাতার সংশোধিত নাম দেখা যাবে। 


আর যদি আপনার জন্ম নিবন্ধন করার সময় আপনার পিতা/মাতার জন্ম নিবন্ধন নাম্বার না দিয়ে থাকেন, তবে আপনার জন্ম নিবন্ধন নাম্বারের সাথে পিতা/মাতার জন্ম নিবন্ধন নাম্বার ম্যাপ করতে হবে। পিতা/মাতার জন্ম নিবন্ধন নম্বর ম্যাপ করার পর আপনার জন্ম নিবন্ধন সনদ পুনরায় করলে, সেখানে পিতা/মাতার সংশোধিত নাম দেখা যাবে।


যদি আপনার পিতা/মাতার জন্ম নিবন্ধন নম্বর না থাকে এবং আপনার জন্ম তারিখ 01/01/2001 এর পূর্বে হয়, তবে আপনার জন্ম নিবন্ধন তথ্য সংশোধন আবেদন করার সময় আপনার পিতা/মাতার নাম সংশোধন করতে পারবেন। এক্ষেত্রে আপনার পিতা/মাতা মৃত হলেও তাদের মৃত্যুর কোন প্রমাণপত্র প্রদান করতে হবে না।


যদি আপনার পিতা/মাতার জন্ম নিবন্ধন নম্বর না থাকে এবং আপনার পিতা/মাতা মৃত হয় এবং আপনার জন্ম তারিখ 01/01/2001 এর পরে হয়, তবে আপনার জন্ম নিবন্ধন তথ্য সংশোধন আবেদন করার সময় আপনার পিতা/মাতার নাম সংশোধন করতে পারবেন। এক্ষেত্রে আপনার পিতা/মাতার মৃত্যুর প্রমাণপত্র প্রদান করতে হবে।

জন্ম নিবন্ধন বয়স কিভাবে সংশোধন করতে পারব


জন্মনিবন্ধনে যদি বয়স ভুল হয় সেক্ষে আমরা কি করতে পারি? কিভাবে সংশোধন করব? তা নিয়ে নিচে আলোচনা করবো। আপনার যদি পড়েন তাহলে বুঝতে পারবেন এবং আপনাদের উপকার হবে।


জন্ম নিবন্ধনে জন্ম তারিখ বা বয়স সংশোধনের জন্য অনলাইনে আবেদন করতে হবে। উপযুক্ত প্রমাণ সাবমিট করলেই ১৫ দিনের মধ্যে আবেদন অনুমোদন হয়ে যায়।

জন্ম নিবন্ধনে জন্ম তারিখ সংশোধনের জন্য যে তথ্য গুলোর প্রয়োজন হবে তা নিচে আলোচনা করা হলো:

১. টিকার কার্ড

২. জাতীয় পরিচয়পত্র

৩. পাসপোর্ট, ড্রাইভিং লাইসেন্স বা টিআইএন সার্টিফিকেট

এই  তথ্য গুলোর প্রমাণপত্র হিসেবে সাবমিট করার প্রয়োজন হয়।

জন্ম নিবন্ধন সংশোধনের জন্য আবেদন 


অনলাইনের মাধ্যমে জন্ম নিবন্ধন কিভাবে আমরা সংশোধন করব। তা নিচে আলোচনা করা হলো। আপনারা যদি আমার পুরো পোস্টটি মনোযোগ সহকারে পড়েন। তাহলে, আশাকরি আপনাদের উপকার হবে।


অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন তথ্য সংশোধন করতে হলে আপনার জন্ম নিবন্ধনটি অনলাইনে থাকতে হবে। তা না হলে অনলাইনে সংশোধন করা যাবে না।

 অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন সংশোধনের আবেদন করতে, সংশোধিত তথ্য যুক্ত করতে হবে। প্রয়োজনীয় তথ্য দিয়ে আবেদন সাবমিট করতে হবে। কতৃপক্ষ আপনার আবেদন যাচাই বাছাই করার পর আপনাকে আবার ডাকতে পারে। তখন আপনি প্রয়োজনীয় কাগজপত্র দেখানোর পর আবেদন অনুমোদন করা হলে জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করতে পারবেন।


আপনারা যদি আমার জন্ম নিবন্ধন সংশোধন অনলাইন  পোস্টটি মনোযোগ সহকারে পড়েন। তাহলে, আশাকরি আপনাদের উপকার হবে। এই পোষ্টের মাধ্যমে আপনারা জানতে পারবেন, কিভাবে অনলাইনের মাধ্যমে জন্ম নিবন্ধন ভুল হলে সেটা কিভাবে সংশোধন করা যাবে।

Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url